কচ্ছপিয়ায় শত বছরের ভোগ দখলীয় জায়গা জবর দখলের চেষ্টা

0
117

আবদুর রশিদ নাইক্ষ্যংছড়িঃ

রামু উপজেলার কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের বড় জামছড়ি গ্রামের ৫ নং ওয়ার্ড নল বুনিয়া খালের পশ্চিম কুল এলাকায় শত বছরের ভোগ দখলীকৃত জমি জবর দখলের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
জমির মালিক মৃত নজির আহমদের পুত্র অছিয়র রহমান জানান , বড় জামছড়ি খালের পশ্চিম কুল গ্রামের নলবুনিয়া এলাকায় খতিয়ান নং ৫১২ এর পাশ্ববর্তী জমির আশ পাশ এলাকায় আমার বাপ দাদার আমল থেকে ঝোপ জংগল পরিষ্কার করে চাষাবাদ করে আসছি। কিন্তু গত কিছু দিন যাবত একই ইউনিয়নের বড় জামছড়ি গ্রামের ৫ নং ওয়ার্ড নলবুনিয়া এলাকার বাসিন্দা মৃত মোঃ হোসেনের পুত্র শফিক আহমেদ বন জায়গীরদার নাম ধারী প্রকাশ( বদু) জবর দখলের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এনিয়ে জবর দখল কারী শফিক আহমেদ ও তার ভাই সুলতান আহমদ, জাফর আলম, কবির আহমেদ সহ ১০/১২ জন লোক জমির মালিককে মারধর সহ বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়ে আসছে। বর্তমানে জমির মালিকেরা অসহায় হয়ে পড়েছে বলে জানান।
এবিষয়ে অভিযুক্ত শফিক আহমেদ এর নিকট মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান মারধরের হুমকি ও জবরদখল আমি করি নাই। তবে এই জায়গাটি আমি বনজায়গীরদার হিসেবে বনবিভাগ আমাকে চাষাবাদ করার জন্য বলেছেন। কিন্ত জায়গায় বিরুধ থাকাতে আমি বিষয়টি বনবিভাগের কচ্ছপিয়া বিট কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেনকে অবহিত করেছেি। তিনি বিষয়টা নিয়ে উভয় পক্ষের লোকজনকে ডাকবেন বলে জানিয়েছেন।
সর জমিনে গেলে স্থানীয় লোকজন জানান শফিক আহমেদ নিজেকে বনবিভাগের লোক দাবী করে সংরক্ষিত বনের অনেক জায়গা বিক্রির মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ও অভিযোগ তুলেছেন। তাছাড়া স্থানীয়রা শফিক আহমেদের বিরুদ্বে বিভিন্ন অপকর্ম সহ নানান অভিযোগ তুলে ধরেছেন। এবিষয়ে বাকখালী রেন্জের আওতাধীন কচ্ছপিয়া বনবিট কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেনের নিকট মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান, জায়গাটা বনবিভাগের।সেহেতু আগে থেকে যারা ভোগদখলে ছিল তদন্ত করে তাদেরকে দেওয়া হবে।
তদন্ত না করা পর্যন্ত উক্ত জায়গায় কাউকে না যাওয়ার জন্য বলে দিয়েছি। যদি তারা আদেশ না মানে তাহলে এর দায়ভার আমরা নিতে পারবনা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here