কুতুবদিয়া উপজেলা চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত অর্থায়নে দরিদ্রের মাঝে ত্রাণ বিতরণ 

0
126

কাইছার সিকদার

কোভিড -১৯ এর প্রভাব বিস্তার রোধে সারা বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশ সরকার ও বিভিন্ন কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন, এখনো পর্যন্ত যে জন্য করোনা সংক্রমন নিয়ন্ত্রনে রয়েছে তার কারণ হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে (লকডাউন) সারা দেশ জুড়ে জনসমাগম কিংবা চলাচল সম্পূর্ণ রুপে নিয়ন্ত্রন করে রাখা৷ যার ফলে ঘন বসতি পূর্ণ এই দেশে উল্লেখযোগ্য হারে করোনা সংক্রমন কম রয়েছে কিন্তু প্রভাব পড়েছে মানুষের আয়ের উপর৷ ধনী, মধ্যবিত্ত থেকে শুরু করে দরিদ্র সব শ্রেণীর মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে, বন্ধ হয়ে গেছে তাদের আয়ের উৎস, শুধু থেমে নেই পেটের ক্ষুদ্রা, যার কাছে সব প্রাণী কুল সদা পরাজিত৷

কিন্তু এই দুঃসময়ে প্রকৃত জনতার অভিবাবক গণ নিজের দায়িত্ব কে ভুলে থাকতে পারেন না, কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি, কুতুবদিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান-এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী কুতুবদিয়ার অভিবাবক হিসেবে তাঁর প্রিয় জনতার মাঝে ত্রাণ কর্তা হয়ে আবির্ভূত হয়েছেন৷

এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী তাঁর নিজ উদ্যোগে ও নিজ অর্থায়নে প্রাথমিক ভাবে সারা কুতুবদিয়ায় ১০০০(এক হাজার) পরিবারের জন্য ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের কার্যক্রম হাতে নিয়েছন বলে তিনি জানান, পর্যায়ক্রমে ২য় দফায় আরো ব্যাপক আকারে ত্রাণ বিতরণের পরিকল্পনা রয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি৷

আজ ২৪শে এপ্রিল ২০২০ইং শুক্রবার ধারাবাহিক বিতরণের ৩য় দিন কুতুবদিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে করোনায় কর্মহীন ও অসহায় অতি দরিদ্র মানুষের মাঝে উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী কে ত্রাণ বিতরণ করতে দেখা যায়৷ এ সময় বিতরণ কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন কুতুবদিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জনাব- আওরঙ্গজেব মাতবর, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুচ্ছফা বি.কম সহ কুতুবদিয়া উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের শীর্ষস্থানীয় নেত্রী বৃন্দ৷

এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী এ ব্যাপারে তাঁর বক্তব্যে জানান- আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে রাজনীতি করি, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে জন নেত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে সময়ের সাথে এগিয়ে যাচ্ছি৷ আমি আজীবন জনগন মুখি রাজনীতি করে এসেছি, জনগনই আমার শক্তি, জন সেবায় আমার স্বস্তি৷ আমি সুখে, দুঃখে সব সময় জনগনের পাশে ছিলাম, আছি এবং ভবিষ্যতে ও জনগনের পাশে থেকে তাদের সেবা করে যেতে চাই৷ তাই করোনা ভাইরাসের এই সংকট ময় মূহুর্তে আমি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে আমার প্রিয় জনতার মাঝে হাজির হয়েছি৷ করোনা দুর্যোগ শেষ না হওয়া পর্যন্ত সরকারী সহায়তার পাশাপাশি তাঁহার নিজস্ব অর্থায়নের এই ত্রাণ সহায়তা নিয়ে অসহায় দ্বীপবাসির দোর গোড়ায় থাকবেন বলে তিনি আশ্বাস দেন৷

কুতুবদিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি- আওরঙ্গজেব মাতবর বলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ জন বান্ধব সংগঠন, দেশ ও জনগনের মঙ্গল করাই জন নেত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য৷ কুতুবদিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে আমি করোনা দুর্যোগে জন নেত্রী শেখ হাসিনার আদেশ অনুসরণ করে সার্বক্ষণিক জনগনের পাশে থেকে সাহায্য সহযোগিতা করে যাচ্ছি৷ নিজ অর্থায়নে ৫০০শর ও অধিক রোজগার বিহীন অসহায় পরিবার কে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ও ১ হাজার ব্যক্তির মাঝে ভাইরাস প্রতিরোধী মাস্ক্ বিতরণ করেন বলে তিনি জানান৷

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাঃ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুচ্ছফা বি.কম বলেন শুধু ভাষা কিংবা স্বাধীনতা সংগ্রামে নয় দেশ ও জনগন রক্ষায় সকল সংগ্রামে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সদা তৎপর৷ নেত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নে করোনা যুদ্ধে ও জনগনের পাশে থেকে মহামারী সংক্রমণ ঠেকাতে সংগ্রাম করে যাচ্ছি৷ জন সচেতনতা বৃদ্ধি ও ক্ষুধা নিবারণে ত্রাণ নিয়ে ছুটছি মানুষের মাঝে৷ করোনা মোকাবিলার সংগ্রামে এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরীর নিজ অর্থায়নে এই ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি৷

সাধারণ মানুষ ও ত্রাণ সেবা প্রাপ্ত নারী পুরুষ সকলেই আনন্দিত৷ ত্রাণ নিয়ে ফেরার পথে মাঝ বয়সি একজন তার অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন আমরা সবসময় ওনাকে (ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী) বিপদে আপদে পাশে পেয়েছি, করোনার সময়ে ও এই সহযোগিতা পেয়ে সত্যিই কৃতজ্ঞ আমি৷

সংকটে এই অকৃপণ সহযোগিতা কুতুবদিয়ার সর্বমহলে প্রশংসা পেয়েছে৷ এবং এটা সকল জন প্রতিনিধি ও বিত্তবান্‌ দের জন্য দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে বলে অনেকে মন্তব্য করেন৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here