ঘুষের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে এ্যাকশনে নেমেছেন কেউ রেহাই নেই বলেন র‍্যাব-১৫ সিও উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ

0
104

বিশেষ প্রতিবেদন।

র‌্যাব-১৫ এর সিও উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ বলেছেন, কক্সবাজার ভূমি অধিগ্রহণ শাখায় জমি অধিগ্রহণের ঘুষ গ্রহণের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে এ্যাকশনের নেমেছে র‌্যাব। ঘুষ গ্রহণের সাথে জড়িত কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং দালালসহ কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। ঘুষ গ্রহণকারী যত বড় রাঘব-বোয়াল হোক তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে র‌্যাব।

গত বুধবার র‌্যাবের অভিযানে ঘুষের ৯৪ লাখ টাকাসহ এক সার্ভেয়ার আটকের অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে র‌্যাব-১৫ কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মলনে র‌্যাব-১৫ এর সিও উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৫ টার দিকে র‌্যাব-১৫ কক্সবাজার ক্যাম্পের সিও মেজর মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে কক্সবাজার শহরে ঘুষ গ্রহণে অভিযোগ পেয়ে তিন সার্ভেয়ারের বাসায় র‌্যাবের একটি দল। অভিযানে শহরের বাহারছড়া এলাকার একটি বাসা থেকে তাকে সার্ভেয়ার ওয়াসিমকে আটক করা হয়। তার বাসা থেকে ঘুষের ছয় লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে বিভিন্ন ব্যাংকের বেশকিছু চেক ও নথিপত্র উদ্ধার করা হয়। একই সাথে সার্ভেয়ার ফরিদ ও ফেরদৌসের বাসায় অভিযান চালানো হয়।

তিনি জানান, অভিযানে কক্সবাজার শহরের তারাবনিয়ার ছড়া সার্ভেয়ার ফেরদৌসের বাসায় অভিযান চালিয়ে প্রায় ২৭ লাখ টাকা জব্দ করা হয়েছে। এছাড়া বাহারছড়া এলাকায় সার্ভেয়ার ফরিদের বাসায় অভিযান চালিয়ে ৬০ লাখ ৮০ হাজার টাকা জব্দ করা হয়। একই সাথে ১৫ লাখ টাকার তিনটি চেক উদ্ধার করা হয়। তবে অভিযান টের পেয়ে তারা পালিয়ে যায়। সার্ভেয়ারদের বাসার বিছানার তোষক, বালিশসহ বিভিন্ন জায়গা থেকে এসব টাকা উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

র‌্যাব-১৫ এর সিও উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ বলেন, ঘুষের উদ্ধারের ঘটনায় আটক একজনসহ তিন সার্ভেয়ারের বিরুদ্ধ মামলার প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়। আমাদের পক্ষ থেকে মামলাটি করা হবে। একই সাথে ভূমি অধিগ্রহণের ঘুষ লেনদেনের সাথে জড়িত কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং দালালদের অভিযান জোরদার থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here