নাইক্ষ্যংছড়ির করোনায় আক্রান্তের পরিবার সহ -২০ জনের নমুনা সংগ্রহ,আতংক নয় সচেতনতা জরুরী

0
121

আবদুর রশিদ নাইক্ষ্যংছড়ি

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুমের তুমব্রু এলাকার কোনাপাড়া গ্রামের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত তাবলীগ ফেরৎ আবু ছিদ্দিক (৫৯) এর পরিবারের সহ স্বজনদের নমুনা সংগ্রহ করেছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। শনিবার (১৮ এপ্রিল) দুপুরে ওই এলাকায় গিয়ে আক্রান্ত হওয়া বৃদ্ধ আবু ছিদ্দিকের স্ত্রী ও শিশু সন্তানসহ রোগীর সংস্পর্শ আসা ২০ জনের নমুনা সংগ্রহ করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল টিম। সংগ্রহকৃত রক্তের নমুনা একেইদিনে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ
(আইই‌ডি‌সিআর) ফিল্ড ল্যাব‌রেটরীতে
পাঠানো হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: আবু জাফর মো,ছলিম জানান, গত ১৫ এপ্রিল করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধ আবু ছিদ্দিক (৫৯)সহ ৬জনের নমুনা সংগ্রহ করে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ
(আইই‌ডি‌সিআর) ফিল্ড ল্যাব‌রেটরীতে পাঠানো হয়।

বিগত ১৬ এপ্রিল বৃহস্পতিবার সকালে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবরেটরীতে ওই ব্যক্তির করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

তিনি আরো জানান, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ওই ব্যক্তি বর্তমানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসারত রয়েছেন আমরা, তার নিয়মিত চিকিৎসা দিচ্ছি।
নাম প্রকাশে অনিশ্চুক হাসপাতালের একজন ডাক্তার জানান এখানো সে স্বাভাবিক আছে,
নিয়মিত নামাজ পড়ছে। তাই এলাকা বাসি কে আতংকিত না হয়ে, সচেতনতা তৈরি করা দরকার।
এছাড়া ইতিমধ্যে সংগ্রহ কৃত ২০ জনের নমুনার রিপোর্ট আগামি কাল আসার সম্ভাবনা রয়েছে তখন নতুন করে কেউ আক্রান্ত কিনা তা জানা যাবে।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া আফরিন কচি বলেন, করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়িতে যাতায়াতের সংস্পর্শ ব্যক্তিসহ গ্রামের ৩৬ পরিবারের ঘর-বাড়ী লকডাউন করা হয়েছে। অবস্থা গুরুতর না হওয়ায় তাকে বাড়িতে রেখেই চিকিৎসা দেওয়া হয়েছিল। পরে উর্ধতন মহলের নির্দেশ মোতাবেক নাইক্ষ্যংছড়ি হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসা দেয়ার জন্য রাখা হয়েছে।
এবং
তাঁর পরিবারের সব সদস্যকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে এবং তাদের ২০ জনের নমুনা সংগ্রহ করে
কক্সবাজার মে‌ডি‌কেল ক‌লেজের (আইইডিসিআর) ফিল্ড ল্যাবরেটরীতে পাঠানো হয়েছে। নমুনার ফলাফল হাতে এলে নিশ্চিত হওয়া যাবে ওই পরিবারে আর কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে কি না।
তিনি আরো জানান, করোনায় আক্রান্ত বৃদ্ধের পরিবারে খাবারের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে। তাদের বলা হয়েছে কোন প্রকার খাদ্য সহায়তা ও চিসিৎসা সেবার প্রয়োজন হলে প্রশাসনকে জানাতে।এদিকে
উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো শফিউল্লাহ বলেন সরকার আপনাদের পাশে আছে,অহেতুক ভয় পাওয়ার দরকার নেই, সবাই নিয়মিত সরকারি নির্দেশানা মেনে চলুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here