পালংখালীতে জমি দখল নিতে হামলা ও ভাংচুর,আহত-২

0
176

নিজস্ব প্রতিবেদক :

উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের ফারির বিল ৮ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা শামশু আলম এর সত্ত্ব দখলীয় জমিতে স্থাপিত বাড়িতে রাতের অন্ধকারে সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে হামলা চালিয়ে বাড়ি-ঘর ভাংচুর সহ বাড়ির মালিক শামশু আলম তার স্ত্রীকে মারধর করে গুরুতর আহত করেছে একই এলাকার বাসিন্দা মৃত সিকান্দার আলীর ছেলে শফিক বাহিনী। এতে শামশু আলম এর প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করেছে।

হামলাকারীরা হলেন, ১।শফিক(৩০)পিতা মৃত সিকান্দার আলী,২।কুলসুমা বেগম(৪৫),স্বামী মৃত জালাল আহমদ,৩।বদিউল আলম(৪৫)পিতা মৃত আলী মিয়া,৪।মোহাম্মদ আমিন(৩০)পিতা মৃত জালাল আহমদ সহ আরো অজ্ঞাত ৪/৫ জন।

এঘটনায় আহত শামশু আলম এর স্ত্রী মাহমুদা বেগম উখিয়া থানায় উপস্থিত হয়ে উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়,কিছুদিন ধরে একই এলাকার বাসিন্দা মৃত সিকান্দার আলীর ছেলে শফিক জোরপূর্বক শামশু আলম এর সত্ত্ব দখলীয় জমি দখলে নিতে চেষ্টা চালাচ্ছে।এরই পরিপ্রেক্ষিতে ঘটনার দিন রবিবার (২৪ জানুয়ারী)রাত আনুমানিক সাড়ে ১০ টার দিকে ফারির বিল শামশু আলমের সত্ত্ব দখলীয় জমিতে স্থাপিত বাড়িতে সংঘবদ্ধ বাহিনী নিয়ে অস্ত্র সজ্জিত হয়ে অতর্কিত হামলা করে বাড়ি-ঘর ভাংচুর সহ বাড়ির মালিক শামশু আলমকে মারধর করলে তার চিৎকারে স্ত্রী মাহমুদা বেগম ছুটে আসলে শফিক বাহিনী তার মাথার চুল ধরে লাথি, কিল-ঘুষি ও পরনের কাপড় ছিড়ে ফেলে।পরে তাদের আত্নচিৎকার শুনে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসী বাহিনী পালিয়ে যায়। এতে বাড়ির মালিক শামশু আলম এর প্রায় ৬৫ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করে।মারধর করার পরও হামলাকারীরা প্রকাশ্যে প্রাণে মারা সহ মামলা না করতে হুমকি ধামকি দেয়। পরে শামশু আলম ও তার স্ত্রী মাহমুদা বেগমকে তাদের আত্মীয়স্বজন গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

অসহায় মাহমুদা বেগম তার ভিটেমাটি রক্ষা সহ পরিবারের উপর বর্বরোচিত হামলার বিচার চেয়ে প্রশাসনের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এবিষয়ে উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা( ওসি)আহাম্মদ সন্জুর মোর্শেদ জানান,আমার হাতে এখনো অভিযোগটি আসেনি, আসলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here