বিপুল পরিমাণ মাদকসহ আটক করা হয়েছে পরীমণিকে

0
83
বিপুল পরিমাণ মাদকসহ চিত্রনায়িকা পরীমণিকে আটক করেছে র‍্যাব। বুধবার বিকেলে চিত্রনায়িকা পরীমণির বাসায় র‍্যাবের অভিযানের ঘটনায় তার বাসা থেকে এসব মাদক উদ্ধার করা হয়েছে বলে র‍্যাবের তরফ থেকে জানানো হয়েছে।
বুধবার (৪ আগস্ট) বিকেলে র‍্যাব ও পুলিশের সদস্যরা বনানীতে আলোচিত এই নায়িকার বাসার গেলে এ ঘটনা জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে লাইভে এসেছেন পরীমণি।
ঘটনাস্থলে র‌্যাবের কর্মকর্তারা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতেই পরীমণির বাসায় অভিযান চালানো হচ্ছে। তারা সুনির্দিষ্ট প্রমাণ-সম্বলিত কিছু অভিযোগ নিয়েই এখানে অভিযান পরিচালনা করছেন। তবে সেই সুনির্দিষ্ট অভিযোগ কী তা র‌্যাব কর্মকর্তারা বলেননি। হয় তো পরীমণিকে আটক করা হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
কয়েকদিন আগে মডেল পিয়াসা ও মৌকে মাদকসহ আটক করে র‌্যাব। পিয়াসা-মৌয়ের দুই সহযোগীকেও আটক করেছে র‌্যাব। পিয়াসা-মৌ ও তাদের সহযোগী মিশুর ও হাসানের সাথে পরীমণির একটা সংযোগ থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সেই সূত্র থেকেই হয় তো র‌্যাব পরীমণির বাসায় অভিযান পরিচালনা করছে।
বুধবার বিকেল ৪টার দিকে পরীমণির লাইভে এসে বলেন, ২০ মিনিট ধরে আমার বাসার গেটে ধাক্কাচ্ছে কারা যেন। তারা বলছেন তারা পুলিশ। অথচ আমি বনানী থানায় যোগাযোগ করলে তারা বলেন, আমাদের থানায় থেকে কোনো পুলিশ যায়নি। তিনি বলেন, আমি ডিবি অফিসে ফোন করেছি, বনানী থানায় ফোন করেছি। হারুন ভাইকে (মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার) ফোন করলে তিনি বলেন, তদন্তের স্বার্থে পুলিশ যেতে পারেন। আমি বলেছি আপনি কনফার্ম না করলে আমি দরজা খুলবো না। পরে তিনি ফোন করে বলেন, আমাদের এখান থেকে কেউ যায়নি। আমি জানি না কারা গেছে।
পরীমনি বলেন, শুরু থেকেই আমাকে মেরে ফেলার ভয় পাচ্ছি। আমাকে কেউ মারতে চান। কেউ এসে পুলিশের পরিচয় দিয়ে এসে যদি আমাকে খুন করতে আসেন তাহলে আমি কি করবো। তদন্ত করতে এলে আমাকে পরিচয় দিক। তাহলে আমাকে পরিচয় দিতে হবে। যদি সত্যি পুলিশ হয় তাহলে আমি অবশ্যই দরোজা খুলবো।
পরবর্তীতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের পরিচয় নিশ্চিত করার পর দরজা খুলেন পরীমণি। এরপর আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে সহযোগিতা করার জন্য র‍্যাব কর্মকর্তাদের অনুরোধের প্রেক্ষিতে লাইভ বন্ধ করেন তিনি।
গত বেশ কিছুদিন ধরেই নানা কারণে আলোচিত-সমালোচিত ঢাকায় ছবির এ নায়িকা। গত ১৪ জুন সাভার থানায় ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিনসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন পরীমণি। সেখানে ৯ জুন (বুধবারে) রাতে ঢাকা বোট ক্লাবে তাকে ধর্ষণ ও হত্যা চেষ্টা করার কথা জানিয়েছেন পরীমণি।
১৩ জুন রাতে তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এক পোস্টের মাধ্যমে পরীমণি এই বিষয়ে প্রথম সরব হন ও প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। পরে তার নিজ বাসায় সাংবাদিকদের সামনে এ ঘটনার বিস্তারিত তুলে ধরেন। বিষয়টি দেশজুড়ে আলোড়ন তৈরি করে। পরে পরীমণির বিরুদ্ধেও একাধিক ক্লাবে গিয়ে বিশৃঙ্খলার অভিযোগ উঠে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here